একটি ভূতের গল্প। প্রেতাত্মা। মধ্যরাতে বাজার থেকে আসার পথে ভুতের গল্প। Vuter golpo


একটি ভূতের গল্প। প্রেতাত্মা। মধ্যরাতে বাজার থেকে আসার পথে ভুতের গল্প


এই ভূতের গল্প টি ১৫ বছর আগের ভূতের কাহিনী গল্প। এক লোক বাজারে গেল সে সচরাচর সন্ধ্যা আসে না। সে আসে অনেক গভীর রাতে। একটা দুটো করে বাজার থেকে আসে। সেই রাতেও অর্থাৎ ঘটনার রাতেও সে বাজার থেকে আসছিল তখন প্রায় দুটো বেজে গেল। তো যখন সে বাজার থেকে কিছু দূরে এল তখন তার সামনে কিছু একটা দেখতে পেল। সে সিগারেট খেতে খেতে আসছিল সে খেয়াল করে দেখল একটি শিমুল গাছে একটি ভুত দাঁড়িয়ে আছে। এত পা শিমুল গাছের উপরে অন্য এক পা নদীর ওপারে অন্যপাশে। সে যেখান দিয়ে হাঁটছিল তার সামনে শিমুল গাছে অনেক অনেক কালো ভয়ানক ভুতটা। শরীরের পশম দারিয়ে যাওয়ার মত অজ্ঞান হয়ে যাবার মত অবস্থা। তখন লোকটা অনেক ভয় পেয়ে যায়। তখন তার জ্ঞান হারিয়ে যাবার পালা। কিন্তু সে বুদ্ধি করে ওই মুহূর্তে বিড়ি টানছিল। তার হাতে বিড়ি টানতে দেখে তার প্রাণ আছে মনে হয় না। ভুতটা তখন তাকে বলল চলে যাও। আমি কিছু করবো না। তুই বিড়ি খাওয়া বন্ধ কর। বিড়ি খাওয়া বন্ধ করে তুই এখান থেকে চলে যা তাড়াতাড়ি চলে যা আমার পায়ের নিচে দিয়ে দ্রুত চলে যা। আমি তোকে কিছু করবোনা। কিন্তু তুই বিড়ি খাওয়া বন্ধ কর।

না আমি তোর পায়ের নিচ দিয়ে যাব না। তুই সরলে আমি যাব। তবুও তোর পায়ের নিচ দিয়ে যাব না।

হিহিহাহাহেহাহাহাহা
তোকে যেতে হলে আমার পায়ের নিচ দিয়েই যেতে হবে।
লোকটা তখন বুঝতে পারলো যে বিড়ি খাওয়া খাওয়া বন্ধ করা যাবে না। বিজি খাবার জন্যই কিন্তু ভুত তার কাছে আসছে না না হলে তার কাছে এসে তাকে ধরে মেরে ফেলবে। এবং সে যদি বিড়ি খাওয়া বন্ধ করে দিয়ে ভুতের রানের নিচ দিয়ে যেতে চায় তখনই পা দিয়ে তাকে চেপে ধরে মেরে ফেলবে। কিন্তু সেটা হতে চাইত না। সে তখন বুদ্ধি খাটাতে লাগল। যে আমি বিড়ি খাওয়া বন্ধ করব না। যে আমি যদি এখানে ঘুরে পড়ে যায় অজ্ঞান হয়ে যাই দেহ ছেড়ে দিয়ে তাহলে এই ভুতটা আমাকে মেরে ফেলবে। কিন্তু যতক্ষণ আমার হাতে বিড়ি থাকবে ততক্ষণ এই ভূতটা আমার কিছুই করতে পারবে না। আমাকে সাহস যোগাতে হবে। জ্ঞান হারালে চলবে না তখন ঐ লোকটার বিড়ি টানতে লাগল। ঝরঝর ঝরে পড়ে বিড়ি টানতে লাগল। আর ভুত তাকে ভয় দেখাচ্ছে।

এবং আস্তে আস্তে সামনের দিকে এগোলো। ওই কী করলো সে নদীর ওপার থেকে অন্য পা এনে অন্য একটা গাছে রাখল। তখন রাস্তার দু'পাশে দুটি গাছে ভূত এর দুটি পা। সে তখন পা দিয়ে জোরে জোরে গাছ নাড়াতে থাকলো। লোক অবাক হয়ে থমকে গেল। এবং সে অজ্ঞান হয়ে যাওয়ার মত। জ্ঞান হারিয়ে যাওয়ার মত। কিন্তু তখন সে আরও বুদ্ধি খাটাতে লাগলো। এটাই অন্য কোন কিছু তো আর তার কাছে নেয়। দিতে পারছে না। বিড়ি টানা ছাড়া।

তখন সে যেখানে ছিল সেখানে কোনো বাড়ি নেয়। বাড়ি দূরে কিন্তু সে যদি চিতকার করে কেউ আসবে না। অযথা সে চিৎকার করলে মনে করবে সে ভয় পাচ্ছে। তাহলে তার ওপর আরো বেশি আক্রমণ করতে পারে। এবং চিৎকার করার ফলে তার হয়তো জ্ঞান শক্তি কমবে। সমস্যা হতে পারে। তাই সে একমাত্র হাতিয়ার হল তখন সে আরো জোরে বিড়ি টানতে লাগলো। এবং এক পা দু পা করে সামনে এগিয়ে যেতে লাগলো। তখন ভূতটা একটু পিছিয়ে আরেকটা শিমুল গাছ ছিল সেখানে গেল। সেখানে গিয়ে আবারও সেই আগের মতই গাছটি ঝাকাতে লাগলো। এত ঝরঝরে কাজটি ঝাকাতে লাগলো মনে হচ্ছে ১০০ জন মানুষ গাছটাকে নিয়ে পারাপারি করছে নারানারি করছে গাছটিকে ঝাকাচ্ছে। সে এত জোরে গাঠ গাছ ঝাকালো মনে হচ্ছে গাছের কোন গোড়া নেয়। গাছ বাতাসে দুলছে। এত জোরে জোরে নাড়াচ্ছে লোকটার পশম দাড়িয়ে গেল। পশম কাটা দিয়ে গেল। ঝাকানো গুলো তার উপর দাঁড়িয়ে গেল। আর ওই ভুতটা তখন আরো ভয়ানক আকার ধারণ করতে করতে থাকলো। তখনও লোকটা বিড়ি টেনে যাচ্ছে। যত দ্রুত পারছে যত তাড়াতাড়ি পারছে। এভাবে করেছে আস্তে আস্তে একপা দুপা করে একটু সামনে এলো। তখন ভুতটা একটু পিছিয়ে গেল। অর্থাৎ লোকাটার সামনে যেতে লাগল। লোকটা যত সামনে যেতে লাগল ভুতটা তত সামনে যেতে লাগলো। এভাবে করে যখন বাড়ির কাছাকাছি চলে আসছিল তখন ভুতটা ভয় দেখানো আস্তে আস্তে বন্ধ করে দিল। তখন লোকটা বাড়িতে আসলো। এসে তার দরজা-জানালা সব কিছু বন্ধ করে দিল। তো আশ্চর্যের বিষয় হল তখন তার বাড়িতে তার ছেলে বউ কেউ ছিলনা। ছেলে সন্তানের স্ত্রী কেউ ছিলনা। সে একাই তো তখন সে ভয়ে কাঁপছিল। কিন্তু সে হিতাহিত জ্ঞান বুদ্ধি হারিয়ে ফেলেন নি। বুদ্ধি খাটিয়ে সে কি করলো গরমপানি করল। এবং সে আগুন জেলে গরম পানি দিয়ে গোসল করে নিল। তারপর সে আগুনের কাছে বসে থাকল সারারাত। এরপরে যখন সকাল হলো তারপর সে ঘুমাতে গেল ।

এই ছিল আজকের একটি ভয়ঙ্কর ভূতের গল্প। যা শুনে সবার শরীর কাটা দিয়ে যাওয়ার মত গায়ের পশম দারিয়ে যাওয়ার মত জ্ঞান হারিয়ে যাওয়ার মত। এই ছিল মধ্যরাতে বাজার থেকে আসার ভয়ঙ্কর ভূতের গল্প।

বাজার থেকে আসার পথে সবাই সাবধানে আসবেন। পারলে কারো সাথে আসবে। না হলে তাড়াতাড়ি আসবেন

এটি আজকের ভূতের গল্প। মাঝ রাতে বাজার থেকে আসার পথে ভূতের গল্প। আপনাদের যদি কোনো এরকম অভিজ্ঞতা বা কারো কাছ থেকে কোন কিছু মনে থাকে না কারো কাছে কোন কিছু ঘটে থাকে তাহলে অবশ্যই আমাদেরকে জানাতে পারেন।

bdlovestory.com এ  আপনারা এরকম ভালোবাসার গল্পকথা, জীবনের গল্প, ভূতের গল্প এবং মোটিভেশনাল স্পিচ এরকম অনেক পোস্ট পেয়ে যাবেন। সেখান থেকে পোস্ট বা আর্টিকেল গুলো পড়ে নিবেন। অনেক ভালো লাগবে।

Post a Comment

Previous Post Next Post